অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন মাশরাফি

0
3
অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন মাশরাফি

অনলাইন ডেস্ক : শ্রেষ্ঠ সামাজিক ফাউন্ডেশনের স্বীকৃতি পেয়েছে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন। নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মাশরাফি বিন মর্তুজা এমপি সফল উদ্যোক্তা হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন। বাংলাদেশ ডিজিটাল সোশ্যাল ইনোভেশন ফোরাম নামে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এক জরিপে এ স্বীকৃতি দিয়েছে।

সামাজিক উদ্ভাবন ও ডিজিটাল দক্ষতা অর্জনে ভূমিকা রাখায় নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন এবং এর চেয়ারম্যান ‘শ্রেষ্ঠ ডিজিটাল সোশ্যাল ফাউন্ডেশন ইনোভেটর অ্যাওয়ার্ড’ পাচ্ছেন।

বাংলাদেশ ডিজিটাল সোশ্যাল ইনোভেশন ফোরামের চেয়ারম্যান আলী আকবর জানান, জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে সামাজিক উদ্ভাবন ও ডিজিটাল দক্ষতা অর্জনে ভূমিকা রাখার জন্য ‘নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন এবং এর সফল উদ্যোক্তা হিসেবে ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মাশরাফি বিন মর্তুজা এ অ্যাওয়ার্ড পাচ্ছেন। দেশের ২৬টি ফাউন্ডেশনের মধ্য থেকে বাছাই করে গত রোববার অফিসিয়ালি এ স্বীকৃতি দয়া হয়েছে। আগামী ২৫ থেকে ২৭ জানুয়ারির মধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে এ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ডিজিটাল সোশ্যাল ইনোভেশন সামিট-২০১৯ চালু করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশনের জেনারেল সেক্রেটারি তরিকুল ইসলাম অনিক বলেন, নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন যে সামজিক উন্নয়নে সত্যিই কাজ করছে এ অ্যাওয়ার্ড তার প্রমাণ। এ পুরস্কার আমাদের আগামীতে আরও ভালো কাজ করতে উৎসাহ যোগাবে।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালের ৪ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ ওয়ানডে ক্রিকেট দলের অধিনায়ক নড়াইল এক্সপ্রেস খ্যাত মাশরাফি বিন মর্তুজার নেতৃত্বে নড়াইল এক্সপ্রেস ফাউন্ডেশন নামে একটি সম্পূর্ণ স্বেচ্ছাসেবী ও জনকল্যাণমূলক সংগঠন গড়ে ওঠে। নড়াইলকে দেশের মধ্যে একটি শ্রেষ্ঠ বাসযোগ্য জেলা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য বিভিন্ন জনকল্যাণমূলক কাজ শুরু করা হয়।

এসব কাজের মধ্যে রয়েছে- দুস্থ মানুষকে স্বাস্থ্যসেবা ও শিক্ষার জন্য আর্থিক সাহায্য প্রদান, নড়াইলে কম খরচে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন থায়রো কেয়ার বাংলাদেশ লিমিটেড নামে একটি ডায়াগনোস্টিক ল্যাবরোটারির প্যাথলজিক্যাল টেস্ট কার্যক্রম, ঢাকার বাড্ডা ও বনানীতে প্রেসক্রিপশন পয়েন্ট নামে একটি ক্লিনিক ও ডায়ানস্টিক সেন্টারে কম খরচে উন্নত সেবা প্রদান, নড়াইল শহরের দুটি পয়েন্টে ফ্রি ওয়াইফাই চালু, তৃণমূল পর্যায় হতে ক্রিকেট, ফুটবল ও ভলিবল খেলোয়াড় অন্বেষণ ও বাছাই করে তাদের প্রশিক্ষণ দেয়া, শহরে অত্যাধুনিক একটি জিম নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু, গ্রীন ও ক্লিন নড়াইল করতে শহর ও লোহাগড়া পৌরসভার বিভিন্ন পয়েন্টে ১২০টি ডাস্টবিন স্থাপন, চলতি বোরো মৌসুমে জেলার ১ হাজার কৃষকের মধ্যে বিনামূল্যে ধানের বীজ বিতরণ এবং নড়াইল শহর এবং লোহাগড়া পৌর এলাকার ৫৩টি পয়েন্টে সিসি ক্যামেরা স্থাপন।

আপনার মন্তব্য লিখুন............