ক্রীড়াঙ্গনের যারা নতুন মন্ত্রিসভায়

ক্রীড়াঙ্গনের যারা নতুন মন্ত্রিসভায়

শব্দপাতা ডেস্ক : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছিলেন ক্রীড়াঙ্গনের এক ঝাঁক মানুষ। সে তুলনায় কম ছিল বিএনপিসহ অন্যান্য দলে। স্বাভাবিকভাবেই জয়ের পাল্লাটা অনেক ভারী নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করা সাবেক-বর্তমান খেলোয়াড় ও সংগঠকদের।

ভোটের লড়াইয়ে বিজয়ের পর মন্ত্রিসভায় জায়গা পাওয়ার দৌড়েও ছিলেন অনেক ক্রীড়াবিদ, ক্রীড়া সংগঠক। শেষ পর্যন্ত ক্রীড়ার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ৯ জনের জায়গা হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নতুন মন্ত্রিসভায়। সোমবার বিকেলে বঙ্গভবনে শপথ নিয়েছে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা। প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রিসভার সদস্য ৪৭।

মন্ত্রিসভা গঠনের আগে ক্রীড়াঙ্গনের কৌতূহল ছিল- কে হচ্ছেন এই অঙ্গনের নতুন বস? ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মর্তুজা প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য হওয়ার পর মন্ত্রিসভায় থাকবেন বলেও বেশ আলোচনায় ছিলেন। সরকারের আগের আমলের পুরো সময় ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী থাকা ড. বীরেন শিকদার ও উপমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করা সাবেক ফুটবলার আরিফ খান জয়ের মধ্যে আলোচনায় ছিলেন শুধু বীরেন শিকদার।

নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন না পাওয়ায় আরিফ খান জয় আগেই চলে গিয়েছিলেন বাতিলের খাতায়। বীরেন শিকদার ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব না পেলেও অন্য মন্ত্রণালয় পাবেন- এমন আশায় ছিলেন তার ঘনিষ্ঠরা। কিন্তু সর্বশেষ ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর জায়গা হয়নি মন্ত্রিপরিষদে।

গাজীপুর-২ আসন থেকে পরপর চারবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়া জাহিদ আহসান রাসেলকে নতুন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবার এ মন্ত্রণালয়ে আর কাউকে রাখা হয়নি। জাহিদ আহসান রাসেল ক্রীড়াঙ্গনেরই মানুষ। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকারের আগের দুইবার ছিলেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি।

বিদায়ী ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ড. বীরেন শিকদারের মন্ত্রিসভায় জায়গা না হলেও আছেন সাবেক ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন নোয়াখালী-৫ আসন থেকে। তিনি আগের মতো এবারও সড়ক ও সেতু মন্ত্রীর দায়িত্ব পেয়েছেন।

সরকারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয় অর্থ। এ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পেয়েছেন ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি), বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সাবেক সভাপতি ও আবাহনীর পরিচালক আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি এর আগে ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে।

পূর্ণ মন্ত্রী হয়েছেন নারায়ণগঞ্জ-১ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক এই পরিচালক পেয়েছেন পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব। প্রথমবারের মতো মন্ত্রী হয়েছেন এ ক্রীড়া সংগঠক। বাংলাদেশ টেনিস ফেডারেশনের সভাপতি, বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের সাবেক সহ-সভাপতি ও আবাহনীর পরিচালক মো. শাহরিয়ার আলম এবারও পেয়েছেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব।

ঢাকা-৩ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য নসরুল হামিদ বিপু এবারও পেয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব। সাবেক এ হকি খেলোয়াড় আবাহনী লিমিটেডের অন্যতম পরিচালক। নাটোর-৩ আসন থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য জুনাইদ আহমেদ পলক এবারও পেয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব। বাংলাদেশ ক্যারাম ফেডারেশনের সভাপতি তরুণ এ প্রতিমন্ত্রী।

আরও দুই জন ক্রীড়া সংগঠক প্রথমবারের মতো মন্ত্রিসভায় জায়গা পেয়েছেন। একজন বান্দরবান থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য বীর বাহাদুর উশৈসিং। বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের সাবেক এ সহ-সভাপতি হয়েছেন পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়কমন্ত্রী। ঢাকা-১৫ থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য কামাল আহমেদ মজুমদার এক সময় সংশ্লিষ্ট ছিলেন খেলাধুলার সঙ্গে। তিনি বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক ফেডারেশনের সাবেক সভাপতি। তিনি পেয়েছেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য লিখুন............