“জান দেবো তবুও মাঠ দেবো না” : আলীগঞ্জবাসী

0
65
“জান দেবো তবুও মাঠ দেবো না” : আলীগঞ্জবাসী

শব্দপাতা ডেস্ক : “জান দেবো তবুও মাঠ দেবো না” শ্লোগানে প্রকম্পিত আলীগঞ্জ মাঠ উচ্ছেদকে কেন্দ্র করে আলীগঞ্জে সকল শ্রেণী পেশার মানুষ সমবেত হয়ে এই শ্লোগান দেন। আজ ২৬ মে সকালে গণপূর্ত বিভাগ মাঠ উচ্ছেদ করবে এমন সংবাদ এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে মসজিদের মাইকে জানানো হয়। সেই মাইকিং শুনে ঘর ছেড়ে মাঠে এসে উপস্থিত হয় এলাকবাসী। ছাত্র-ছাত্রী থেকে শুরু করে ক্রীড়াপ্রেমী মানুষের ঢল নামে আলীগঞ্জ মাঠে আর শ্লোগান দিতে থাকে জান দিবো তবুও মাঠ দিবো না। সকালে মাঠ উচ্ছেদের জন্য আসেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেজোয়ান আহমেদ এসি ল্যান্ড ফতুল্লা সহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। পরে এলাকাবাসীর বাধাঁর মুখে ফিরে যান তারা। দীর্ঘ দিন যাবত মাঠটি রক্ষায় আন্দোলন করে যাচ্ছে এলাকাবাসী। মাঠটি রক্ষা করা তাদের প্রানের দাবী এই মাঠে খেলাধুলা করে এলাকার যুবকরা। ঐতিহ্যবাহী এই মাঠটিতে আয়োজন করা হয় বিভিন্ন টুনামেন্টের। এ বিষয়ে মাঠ রক্ষায় গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গনতন্ত্রের মানস কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আর্কষন করেছে আলীগঞ্জের সকল শ্রেণী পেশার মানুষ।

বর্তমানে মাঠটিতে গণপূর্ত বিভাগ ভবন নির্মানের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। মাঠটি রক্ষায় এলাকাবাসীর পক্ষে আইনি লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন আলীগঞ্জ ক্লাবের সভাপতি আলহাজ¦ কাউসার আহম্মেদ পলাশ। আলীগঞ্জ বাসীর একটাই দাবী যাতে মাঠটি রেখে ভবন নির্মান করা হয়। এই মাঠটিকে যেন শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম হিসেবে ঘোষনা করা হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষনা অনুযায়ী দেশের প্রতিটি উপজেলায় একটি করে মিনি স্টেডিয়াম নির্মান করার কথা । সে মতে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার আলীগঞ্জের এই মাঠটি মিনি স্টেডিয়াম করার জন্য একবারেই উপযুক্ত একটি মাঠ। প্রাচীন এই মাঠটির রয়েছে অনেক ইতিহাস, ঐতিহ্য।

উল্লেখ্য, গত ২১-১০-২০১৮ তারিখ সকাল ১১.০০ ঘটিকায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গণভবন হতে ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে ৩৫টি জেলায় ৬৬টি শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম, ০৬টি জেলায় ০৬ টি যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং ঢাকা জেলার সাভারে বিকেএসপির মার্ল্টি স্পোর্টস কমপ্লেক্সসহ মোট ৩৮ টি জেলায় নির্মিত ৭৩টি যুব ও ক্রীড়া স্থাপনা এর শুভ উদ্বোধন করেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি মোতাবেক তৃণমূল পর্যায়ে খেলাধুলার প্রসার এবং যুবশক্তিকে উন্নয়নের মূল শ্রোতধারায় নিয়ে আসার অভিপ্রায়ে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় দেশের প্রতিটি উপজেলায় শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণের উদ্যেগ গ্রহণ করেন। প্রথম পর্যায়ে দেশের ১৩১টি উপজেলায় ৭৪ কোটি ১১ লক্ষ টাকা ব্যয়ে শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ করা হবে বলে জানানো হয়েছিল।

উপজেলা পর্যায়ে নির্মিত এ সকল স্টেডিয়ামে সংশ্লিষ্ট উপজেলায় সর্বস্থরের জনগণ স্বতস্ফূর্তভাবে ক্রীড়া চর্চা করতে পারবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ড সরাসরি সম্প্রচার করে।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য লিখুন............