ঝালকাঠিতে ভোটের মাঠে আমুসহ ১০ প্রার্থী

ঝালকাঠিতে ভোটের মাঠে আমুসহ ১০ প্রার্থী

অনলাইন ডেস্ক : ঝালকাঠির দুটি আসনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৪ জনের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের পর ১০ জনের প্রার্থিতা চূড়ান্ত হয়েছে। এদের মধ্যে ঝালকাঠি-২ (সদর-নলছিটি) আসনে আওয়ামী লীগের শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বিএনপির জীবা আমিনা খান, জাতীয় পার্টির (এরশাদ) এমএ কুদ্দুস খান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করীম এবং ন্যাশনাল পিপলস পার্টির জাহাঙ্গীর হোসেন খান চূড়ান্ত প্রার্থী হয়েছেন।

এছাড়া ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঠালিয়া) আসনে আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বজলুল হক, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর বীরউত্তম, জাতীয় পার্টির (এরশাদ) এম এ কুদ্দুস খান, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির প্রবীর কুমার মিত্র, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আল্লামা নূরুল হুদা ফয়েজী চূড়ান্ত প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন।

জানা গেছে, মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে সয়ংক্রিয়ভাবে দুইজনের ও আবেদনের মাধ্যমে দুইজন মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন। প্রার্থীরা হলেন, ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঁঠালিয়া) আসনে বিএনপির ভাইসচেয়ারম্যান ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমরকে চুড়ান্তভাবে রফিকুল ইসলাম জামালের মনোনয়নপত্র সয়ংক্রিয় ভাবে বাতিল হয়ে যায়। অপরদিকে ঝালকাঠি-২ (সদর-নলছিটি) আসনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য জীবা আমিনা খানকে চুড়ান্ত মনোনয়ন দেয়ায় এ আসনের সাবেক এমপি ইসরাত সুলতান ইলেন ভূট্টো’র মনোনয়নপত্র সয়ংক্রিয় ভাবে তাঁর প্রার্থীতা প্রত্যাহার হয়ে যায়।

ঝালকাঠি-১ (রাজাপুর-কাঠালিয়া) আসনে ওয়ার্কার্স পার্টির কমরেড আবুল হোসাইন ও জাতীয় পার্টির (জেপি/মঞ্জু) মো. রুবেল হাওলাদার আবেদন করে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করে নেন। প্রার্থিতা প্রত্যাহারকারীরা আবেদনে উল্লেখ করেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ওয়ার্কার্স পার্টি ও জাতীয় পার্টি (জেপি/মঞ্জু) জোটবদ্ধভাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করায় দলীয় সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের আবেদন করেছি।

আপনার মন্তব্য লিখুন............