দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ নিয়ে মাশরাফির রণপরিকল্পনা

0
116
দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ নিয়ে মাশরাফির রণপরিকল্পনা

ক্রীড়া ডেস্ক : শুরুতেই কঠিন প্রতিপক্ষ। রবিবার ২ জুন লন্ডনের কেনিংটন ওভালে বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই বাংলাদেশ মুখোমুখি হচ্ছে শক্তিশালী দক্ষিণ আফ্রিকার। ম্যাচ শুরু হবে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে তিনটায়। যে ম্যাচে ভালো একটি শুরুর প্রত্যাশায় টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

মাশরাফি মনে করছেন, শুরুটা ভালো করতে পারলে পুরো দলের আত্মবিশ্বাস উঁচুতে থাকবে। লন্ডনে আজ (শনিবার) ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে টাইগার দলপতি বলেন, ‘শুরুটা ভালো হলেই অবশ্যই দলের জন্য ভালো। এটা একটা স্বাভাবিক নিয়মই যে শুরুটা ভালো করতে পারলে পুরো টিমের আত্মবিশ্বাসটা বাড়বে।’

কেনিংটন ওভালের যে উইকেটে খেলা হবে, সেখানেই হয়েছে এই বিশ্বকাপের উদ্বোধনী ম্যাচটি। যে ম্যাচে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের কাছে ১০৪ রানের বড় ব্যবধানে হেরেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। প্রথমে ব্যাট করে ৮ উইকেটে ৩১১ রান তুলেছিল স্বাগতিকরা। জবাবে ৩৯.৫ ওভারেই প্রোটিয়াদের ইনিংস গুটিয়ে যায় ২০৭ রানে।

মাশরাফি মনে করছেন, যেহেতু এই উইকেটে আগে খেলা হয়েছে সেখানে স্পিনাররাও সাহায্য পেতে পারেন। তার ভাষায়, ‘আমরা ব্যবহৃত উইকেটে খেলব। প্রথম ম্যাচটা দক্ষিণ আফ্রিকা আর ইংল্যান্ড যেখানে খেলেছে। ওভালের উইকেটে আসলে প্রথম ম্যাচেও ইংল্যান্ড ৩০০ উপরে রান করেছে। আমরা যেটা জানি ব্যাটিং সহায়ক উইকেটই হবে। সেইক্ষেত্রে যেহেতু ব্যবহৃত উইকেট, স্পিনাররা রোল প্লে করতে পারে কিনা এখানে একটা ব্যাপার আছে। কিন্তু এটা নির্ভর করছে উইকেট কেমন আচরণ করবে। আমরা আশা করছি ফ্ল্যাট উইকেটই হবে। যেটা এখানে সাধারণ ব্যাপার। যেটাই হোক, আমাদের মানিয়ে নিতে হবে এবং সেরাটা দিতে হবে স্পিন কিংবা পেস বোলিং দুই দিক থেকেই।’

দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ব্যাটিং বা বোলিং আগে যা-ই করতে হোক না কেন, রণপরিকল্পনা প্রস্তুত করে রেখেছেন মাশরাফি। এখন পর্যন্ত বিশ্বকাপের ম্যাচগুলোতে কেন তেমনভাবে রান হচ্ছে না, সেটাও মাথায় থাকছে বাংলাদেশ দলের।

মাশরাফি বলেন, ‘আমরা আগে ব্যাটিং করলে যেই সংগ্রহই গড়ি না কেন সেটা নিয়ে লড়াই করতে হবে। এখন পর্যন্ত যে ম্যাচগুলো দেখেছি, আমার কাছে মনে হয় যে দ্রুত উইকেট পরে যাওয়ায় রানগুলা বড় হচ্ছে না। কিন্তু ওভালে ইংল্যান্ড প্রথমে ব্যাটিং করার পরও ৩০০ করেছে। হয়তো ব্যাটিংয়ে ওদের কৌশলটা একটু অন্যরকম। দক্ষিণ আফ্রিকার ক্ষেত্রে হাশিম আমলার উইকেটটা খুব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। ও চলে যাওয়ার পর দুটো উইকেট পরে যায়, আসলে একটা ঘটনার পরে ছোটখাটো কারণগুলোই একটা দলকে পিছিয়ে দেয়। আবার একটা ছোটখাটো কারণ অনেক সামনে নিয়ে আসে।’

বাংলাদেশ দলের কৌশল নিয়ে টাইগার দলপতি বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় যে সবকিছুর সাথে সবকিছুর সম্পর্ক আছে। এখানে দ্রুত উইকেট পড়ে গেলে হয়তো বা বড় রান করা একটু কঠিন হবে। আমরা যদি ব্যাটিং করি ঐটা মাথায় রাখতে হবে যেন দ্রুত উইকেট না দিই। বোলিং করলে চেষ্টা করতে হবে যেন আমরা দ্রুত কিছু উইকেট নিতে পারি।’

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য লিখুন............