দোয়ারায় রজনী-সুগন্ধা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক স্বাক্ষরতা দিবস পালিত

0
109
দোয়ারায় রজনী-সুগন্ধা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক স্বাক্ষরতা দিবস পালিত

দোয়ারাবাজার প্রতিনিধি : দোয়ারাবাজার উপজেলায় রজনী-সুগন্ধা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে জমকালো পরিবেশে র‍্যালী ও আলোচনা সভা ও স্লিপ অর্থায়নে ক্রয় কৃত সামগ্রী প্রদর্শনী এবং শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষা সামগ্রী, টিফিন বক্স বিতরণ অনুষ্ঠান সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি জনাব প্রসন্ন দেবনাথের সভাপতিত্বে এবং বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব আব্দুস শহীদ উক্ত অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দকে ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করেন। ইউসুফ খানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ ইদ্রিস আলী বীর প্রতীক, প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মহুয়া মমতাজ, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন দোহালিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জনাব কাজী আনোয়ার মিয়া আনু। উপজেলা শিক্ষা অফিসার এ কে এম ফজলুল হক, সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার আব্দুল বারিক খান সহ দোহালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সকল ইউপি সদস্য, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেত্রীবৃন্দ ও বিভিন্ন বিদ‍্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগণ এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে প্রধান শিক্ষক জনাব আব্দুস শহীদ বিদ্যালয়ের গুরুতর সমস্যা সমূহ তুলে ধরেন। বিশেষ করে বিদ্যালয়ের সাবেক দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষিকা রোকসানা আক্তার কর্তৃক বিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ সকল রেজিস্টার খাতা, এফ ডি আর সহ গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র হস্তান্তর না করা, বিদ্যালয়ের ঝুঁকিপূর্ণ ভবন ও ব্যবহার অনুপোযোগী শৌচাগার, বিদ্যুৎ সংযোগ না থাকা, কর্দমাক্ত রাস্তা ঘাট ও খেলার মাঠ ইত্যাদি সমস্যার ব্যপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবগত করে উল্লেখিত সমস্যা সমূহ দ্রুত সমাধানের জন্য তিনি প্রধান অতিথি, প্রধান বক্তা ও বিশেষ অতিথি বৃন্দের সক্রিয় সুদৃষ্টি কামনা করেন।

প্রধান শিক্ষকের বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট উপজেলা চেয়ারম্যান, নির্বাহী কর্মকর্তা, উপজেলা শিক্ষা অফিসার, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান বিদ্যালয়ের বর্ণিত সমস্যাসমূহ যথাসম্ভব দ্রুত সমাধানের আশ্বাস প্রদান করেন। প্রধান অতিথি জনাব ইদ্রিস আলী বীর প্রতীক বিদ্যালয়ে অচল অবস্থা তৈরীর জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত সাবেক সহকারী শিক্ষিকা রুখসানা আক্তার পপির সমালোচনা করে বলেন, তিনি যেন শিক্ষকতার আড়ালে অন্য কিছু না করেন। বাধ্যতামূলক প্রাথমিক শিক্ষার অন্তরায় সৃষ্টি না করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আনোয়ার মিয়া আনু বলেন, বিতর্কিত শিক্ষিকা রোকসানা আক্তার শিক্ষার্থীদের বিমুখ করার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে এবং নিষ্পাপ শিক্ষার্থীদেরকে নিয়ে কেউ যেন রাজনীতি না করে। পাঁচ শতাধিক ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে আন্তর্জাতিক সাক্ষরতা দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের জন্য আয়োজক প্রতিষ্ঠানের ভূয়সি প্রশংসা করেন বক্তাগণ। অনুষ্ঠানের সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন অত্র বিদ্যালয়ের দাতা পরিবারের সদস্য জনাব সমিরণ দেবনাথ, মিল্টন দেবনাথ, প্রজেশ দেবনাথ, তপন দেবনাথ ও নিরেশ দেবনাথ সহ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সদস্যগণ ও অভিভাবক গণ।

আপনার মন্তব্য লিখুন............

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here