পাগলা ট্রাক চালক শ্রমিক ইউনিয়ন অফিসে হামলা ও ভাংচুর!

0
207
পাগলা ট্রাক চালক শ্রমিক ইউনিয়ন অফিসে হামলা ও ভাংচুর!

নিজস্ব সংবাদদাতা : পরিবহন ধর্মঘটে জ্বালাও-পোড়াওয়ে সমর্থন না দেয়ায় শ্রমিকলীগ নেতা কাউসার আহমেদ পলাশ নিয়ন্ত্রিত পাগলা শাখার কার্যালয়ে হামলা চালিয়েছে দুস্কৃতিকারীরা। এ সময় আন্তঃজিলা ট্রাক চালক ইউনিয়নের পাগলা শাখার অফিসের প্রধান ফটক ভাংচুরসহ জানালার কাঁচ ইট ছুঁড়ে ক্ষতিসাধন করে। সোমবার (৮ অক্টোবর) সকালে পাগলা বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন আন্তঃজিলা ট্রাক চালক ইউনিয়ন কার্যালয়ে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

পরে সংবাদ পেয়ে শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় শ্রমিক কল্যান ও উন্নয়ন বিষয়ক সম্পাদক ও পাগলা শাখার সভাপতি কাউসার আহমেদ পলাশসহ শ্রমিকেরা ছুটে এলে দুস্কৃতিকারীরা পালিয়ে যায়। এর প্রতিবাদে তাৎক্ষনিক পলাশের নেতৃত্বে পাগলা-মুন্সীখোলা এলাকায় বিক্ষোভ মিছিলসহ অবস্থান নেয়।

এ সময় সাংবাদিকদের সাথে কাউসার আহমেদ পলাশ বলেন, আমরা শ্রমিকদের পক্ষে দাবী আদায়ের জন্যে শান্তিপূর্ন কর্মসূচী ঘোষনা করেছি। জ্বালাও-পোড়াও কিংবা ভাংচুর করে আতঙ্ক সৃষ্টির নামে ক্ষতিসাধন করা আমাদের কর্মসূচীর উদ্দেশ্য নয়। অথচ কতিপয় দুস্কৃতিকারী একটি কুচক্রিমহলের ইন্ধনে অরাজকতার মাধ্যমে অশান্তি সৃষ্টি করে আমাদের দাবী-দাওয়া আদায়ে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে চায়।

তিনি আরো বলেন, আমরা সকল শ্রমিকদের বোঝাতে সক্ষম হয়েছি, শান্তিপূর্ন কর্মসূচীর মাধ্যমে দাবী আদায়ে আমরা পরিবহন ব্যবস্থা বন্ধ রাখবো। আমরা কোন গাড়ী চালাব না, যতদিন পর্যন্ত দাবী আদায় না হবে। ৭ অক্টোবর থেকে এ কর্মসূচী শুরু হয়েছে। আমাদের শ্রমিক নেতারা যতক্ষন পর্যন্ত রাস্তায় অবস্থান নিয়েছে ততক্ষন পর্যন্ত কোন অরাজকতা ছিল না। এ ব্যাপারে আশঙ্কা ব্যক্ত করে প্রশাসনের প্রতিটি সেক্টরে আমি নিজে ইনফর্ম করেছি, যাতে তারাও সচেতন থাকে।

পাগলা ট্রাক চালক শ্রমিক ইউনিয়ন অফিসে হামলা ও ভাংচুর!

তিনি জানান, আজকে যারা এসে ভাংচুর করেছে তারা কখনো শ্রমিক হতে পারে না। কারন এ অফিসতো শ্রমিকদেরই। এই যে ক্ষতি সাধন হয়েছে সেটাতো শ্রমিকদের ঘামের টাকায়ই মেরামত করতে হবে।

এ সময় আন্তঃজিলা ট্রাকচালক ইউনিয়নের পাগলা শাখার কার্যকরী বাবুল আহমেদ.সাধারন সম্পাদক জজ মিয়া, দক্ষিনবঙ্গ লাইন সম্পাদক আবুল হোসেনসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য লিখুন............