প্রধানমন্ত্রীর জনসভা সফল করতে নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিকলীগের প্রস্তুতি সভা

0
280
প্রধানমন্ত্রীর জনসভা সফল করতে নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিকলীগের প্রস্তুতি সভা

নিজস্ব সংবাদদাতা : ২১ জুলাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সম্বর্ধনা সভায় যোগদান ও ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালন উপলক্ষে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (১৬ জুলাই) বিকালে ২নং রেলগেটস্থ আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় শ্রমিকলীগ নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি মোঃ আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আখতারুজ্জামানের সঞ্চালনায় এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভাপতির বক্তৃতায় মোঃ আব্দুস সালাম বলেন, আজকে যারা এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছেন তাদেরকে আমি অভিনন্দন জানাই। আমাদের লক্ষ্য একটাই আগামী ২১ জুলাই ও ১৫ আগস্ট সফল করা। যাকে আল্লাহ বাঁচিয়ে রেখেছেন বাঙালি জাতির নেতৃত্বের জন্য, যাকে আল্লাহ বাঁচিয়ে রেখেছেন বাঙালি জাতির উন্নতির জন্য, যাকে আল্লাহ বাঁচিয়ে রেখেছেন এই জাতিকে বিশ্ব দরবারে গর্বিত জাতি হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার জন্য, যাকে আল্লাহ বাঁচিয়ে রেখেছেন স্বাধীনতা বিরোধী যুদ্ধ অপরাধীদের বিচারের জন্য, যাকে আল্লাহ বাঁচিয়ে রেখেছেন স্বাধীনতার সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য, জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ১৯ বার হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। তাই আগামী নির্বাচনে যদি আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসতে না পারে তাহলে দেশের উন্নয়ণে ব্যাঘাত ঘটবে। আমাদের সকলকে মিলে নৌকার পক্ষে কাজ করে উন্নয়নের অগ্রযাত্রাকে চলমান রাখতে হবে।

সভায় জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক এম.এস রাসেল বলেন, শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আছে বলেই দেশ নিরাপদ, শেখ হাসিনা আছে বলেই দেশ আজ উন্নয়নের মহাসড়কে। শেখ হাসিনা যতদিন থাকবে ‘গ্রাম আর গ্রাম থাকবে না, গ্রাম হবে শহরের মত উন্নত’। তিনি আরও বলেন, দেশের উন্নয়নের ধারা অব্যহত ধরে রাখতে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আবারো ক্ষমতায় আনতে হবে। শেখ হাসিনা দেশের মানুষের জন্য সকাল থেকে রাত পর্যন্ত অত্যান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন। এ মহান নেত্রীকে ক্ষমতায় না আনলে দেশ তালেবান রাষ্ট্রে পরিনত হবে।

জাতীয় শ্রমিকলীগ জেলা শাখার সিনিয়র সহ সভাপতি এড. হুমায়ুন কবির বলেন, দেশকে নিম্ন আয়ের দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিনত করেছেন, আমাদের প্রাণ প্রিয় নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড করে সারাবিশ্বে দেশে সম্মান বৃদ্ধি করেছেন। তাই তাকেও আমাদের সম্মান দেয়া প্রয়োজন। সেই সুবাদে ২১ জুলাই ঢাকায় সফল প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে সংবর্ধনা প্রদান করা হবে। আমরা সেই সভায় স্বতস্ফুর্তভাবে অংশগ্রহনের মধ্যদিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে সম্মান জানাবো।

হুমায়ূন কবির আরো বলেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কোন ব্যক্তির দিকে না তাকিয়ে নৌকার দিকে তাকাতে হবে। নৌকার প্রতীক যেই পাবে, তার পক্ষেই কাজ করবো। ইনশাল্লাহ্, আগামী নির্বাচনে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে আমরা ৫টি আসনই নৌকার বিজয় উপহার দিতে পারবো।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক এমএ রাসেল, ব্যাংক ফেডারেশন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি আব্দুল কাদির, জাতীয় শ্রমিকলীগ নারায়ণগঞ্জ জেলার সিনিয়র সহ সভাপতি হুমায়ুন কবির, সহ সভাপতি দাউদ ইব্রাহীম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশরাফ উদ্দীন ভূইয়া, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোখলেসুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুর হাসান আরাফাত, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ কাদের, মাসুদ রানা প্রমুুখ নেতৃবৃন্দ।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য লিখুন............