মইনুলের জামিন নামঞ্জুর; রংপুর আদালত চত্বরে আওয়ামী লীগ বিএনপি সংঘর্ষ

0
33
ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন

অনলাইন ডেস্কঃ রংপুরে দায়ের করা একটি মানহানি মামলায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের জামিন নামঞ্জুর করেছে আদালত। গতকাল রংপুরের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফা ইয়াসমিন মুক্তার আদালতে জামিন শুনানি হয়। আদালত শুনানি শেষে মইনুলের জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এদিকে ব্যারিস্টার মইনুলকে আদালতে হাজির করার পর বিএনপি ও আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। বেলা দেড়টার দিকে আদালত চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ লাঠিচার্জের পাশাপাশি ছয় রাউন্ড টিয়ার শেল ও শটগানের গুলি নিক্ষেপ করে। এ সময় উভয় পক্ষের অন্তত নয়জন আহত হন। পরে পরিস্থিতি শান্ত হলেও আদালতপাড়া জুড়ে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। এর আগে বেলা ১২টা ৩৫ মিনিটে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে আদালতে নেওয়া হলে তার গাড়ি বহরের ওপর হামলা চালায় বিক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও যুব মহিলা লীগের নেতা-কর্মীরা। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা ১২টা ৩২ মিনিটে আদালত চত্বরে মহানগর পুলিশ কড়া নিরাপত্তায় মইনুলকে আদালতে নিয়ে আসে। ১২টা ৩৫ মিনিটে চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের মূল প্রবেশপথে গাড়ি থেকে মইনুলকে নামানোর সময় গাড়ি উদ্দেশ করে ইট, জুতা ও ডিম নিক্ষেপ শুরু করে সেখানে আগে থেকেই সমবেত থাকা আওয়ামী লীগ এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীরা। পরিস্থিতি সামাল দিতে পুলিশ ব্যারিস্টার মইনুলের মাথায় হেলমেট পরিয়ে দেয়। এ সময় সেখানে ব্যাপক বিক্ষোভ করেন ব্যারিস্টার মইনুলের বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা। এতে মইনুলের আইনজীবীদের সঙ্গে পুলিশ ও বিক্ষোভকারীদের ধস্তাধস্তি হয়। রংপুর আদালতের সরকারি কৌঁসুলি আবদুল মালেক জানান, উভয় পক্ষের শুনানি হয়েছে। শুনানি শেষে আদালত ব্যারিস্টার মইনুলের জামিন নামঞ্জুর করেছে। ব্যারিস্টার মইনুলের আইনজীবী মাসুদ রানা বলেন, ‘সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির দায়ের করা মামলায় ব্যারিস্টার মইনুল জামিনে আছেন। বিষয়টি আমরা আদালতকে বোঝাতে সক্ষম হয়েছি। কিন্তু কেন জামিন হলো না বিষয়টি বোধগম্য নয়।’ রংপুর মহানগর পুলিশের সহকারী কমিশনার আলতাব হোসেন বলেন, ‘উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হলে আমরা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করি। এখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক।’ ২২ সেপ্টেম্বর রংপুরের আদালতে মইনুলের বিরুদ্ধে ১০ কোটি টাকার মানহানির মামলা করেন যুবলীগ কর্মী মিলিমায়া বেগম। ওই দিন সন্ধ্যায় মইনুলকে গ্রেফতার করা হয়।

শব্দপাতা ডট কম/তুষার অপু

আপনার মন্তব্য লিখুন............

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here