যতবার নারায়ণগঞ্জ জেগেছে ততবার দেশ জেগেছে : শামীম ওসমান

0
107
যতবার নারায়ণগঞ্জ জেগেছে ততবার দেশ জেগেছে : শামীম ওসমান

শব্দপাতা রিপোর্ট : নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান বলেছেন, আমি যদি কাল মরেও যাই নেত্রীর ডাকে এক মিনিট দেরী না করে রাজপথে নামবেন। আমি আগামী নির্বাচন করার জন্য সমাবেশ ডাকি নাই। যতবার নারায়ণগঞ্জ জেগেছে ততবার দেশ জেগেছে। এই নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগের সূতিকাগার। ৬২, ৬৩, ৬৯’র আন্দোলনে নারায়ণগঞ্জ বাসীর অবদান আছে।

নিজেকে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান দাবী করে বলেন, কারা কি করতে চায় দেশে একটি ঐক্য জোট হয়েছে। মহা ঐক্যজোট হোক ক্ষতি নাই। ড. কামালকে নিয়ে ঐক্য জোট হয়েছে ওনি ভেবেছেন দেশের মানুষ গাধাঁ। উনি বলেন বিএনপির সাথে এক্য হয়েছে তারেক রহমানের সাথে হয় নাই। আপনারা যদি মনে করেন নেত্রীর উপর হামলা করবেন, দেশের উপর হামলা করবেন, নেতাকর্মীদের উপর হামলা করবেন ছাড়বোনা।

নেতাকর্মীদের বলেন, আগামী ১ লা নভেম্বর হতে নভেম্বরের শেষ সময় পর্যন্ত সর্তক থাকবেন। তারা এই সময়ে নির্বাচন বানচাল করবে। যে সব যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসি হয়েছে তাদের সন্তানরা দেশের ক্ষতিগ্রস্ত করতে কাজ করবে। শনিবার (২৭ অক্টোবরে) বিকালে একেএম সামসুজ্জোহা ষ্টেডিয়ামে জেগেছে নারায়নগঞ্জ জেগে উঠো শেখ হাসিনার বাংলাদেশ স্বাধীনতা বিরোধী, আগুন সন্ত্রাস ও অশুভ শক্তির ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে বিশাল জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথা বলেন।

ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি আলহাজ্ব সাইফউল্লাহ বাদলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগ যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শাহ নিজাম, শহর যুবলীগের সভাপতি সাহাদাত হোসেন সাজনু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এহছানুল হক নিপু, ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক হাজ্বী শওকত আলী, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোঃ মজিবুর রহমান, সাধারন সম্পাদক ইয়াসিন মিয়া, বন্দর থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুর রশিদ, সোনারগাঁ থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি এড. সামসুল ইসলাম ভূইয়া, পিরোজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মাসুদুর রহমান মাসুদ।

বিকাল ৩ টায় পবিত্র কোরআন পাঠের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। তার পূর্বে বেলা ১ টা হতে বিভিন্নস্থান হতে খন্ড খন্ড মিছিল নিয়ে নেতা কর্মী রা জনসভা স্থলে আসতে শুরু করে। সোনারগাঁ থানার সকল চেয়ারম্যানের পক্ষে পিরোজপুর ইউনিয়নে চেয়ারম্যান মাসুদুর রহমান মাসুম, কায়েতপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিকের নেতৃত্বে মিছিল নিয়ে জনসভায় যোগদেন।

জনসভায় আরো বক্তব্য রাখেন, সহ-সভাপতি এড, ওয়াজেদ আলী খোকন,মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ইসরাত জাহান স্মৃতি, মহানগর আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, হোসিয়ারী সমিতির সভাপতি ও নাসিক কাউন্সিলর নাজমুল আলম সজল, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রফেসর শিরীন বেগম, সাবেক কাউন্সিলর কামরুল হাসান মুন্না প্রমুখ।

শামীম ওসমান ৫০ মিনিটের দীর্ঘ বক্তৃতায় আরো বলেন, ফখরুল বলেন দেশ রক্ষার মালিক নাকি খালেদা। আমি বলি দেশ রক্ষার মালিক আল্লাহ। ঐক্যজোটের সমালোচনা করে বলেন, বিদেশীদের টাকায় দেশ ধবংস করবেন তা হবেনা। মানুষ পুড়িয়ে মারবেন ২৪ ঘন্টার মধ্যে ঢাকায় গিয়ে ধরে আনবো। তার ৫০ মিনিটের বক্তব্যে বিএনপির সমালোচনা করেন বেশী।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা কৃষকলীগ সভাপতি নাজিম উদ্দিন, মহানগর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি বাবু চন্দন শীল, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক শাহ নিজাম, সংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সাজনু, সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন সাধারন সম্পাদক সাইফুদ্দিন আহম্মেদ দুলাল, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানি, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদ, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মীর সোহেল আলী, ফতুল্লা থানা সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হাজী ফরিদ আহম্মেদ লিটন, ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এম শওকত আলী, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি মজিবর রহমান, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হাজী ইয়াছিন মিয়া, কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি, গোগনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নওশেদ আলী, ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগ নেতা মজিবুর রহমান, যুবলীগ নেতা আজমত আলী, কাউন্সিলর আব্দুল করিম বাবু, শারমীন আক্তার বিন্নী, দুলাল প্রধান, শফি প্রধান অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য লিখুন............