রূপগঞ্জে কলেজছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা

0
11
রূপগঞ্জে কলেজছাত্রকে পিটিয়ে হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মামুন দেওয়ান নাছির (২১) নামে এক কলেজ শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে গুরুতর আহত হওয়ার পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে নিহতের সহপাঠী ও এলাকাবাসী ঘাতকদের বাড়িঘরে আগুন লাগিয়ে দেয়। বৃহস্পতিবার ৩১ জানুয়ারী দুপুরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায় মামুন। গত মঙ্গলবার ২৯ জানুয়ারি পিতলগঞ্জ দেওয়ানবাড়ি এলাকায় হামলায় গুরুতর আহত হওয়ার পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছিলেন।

নিহতের পিতা জিয়ারুল দেওয়ান জানান, তার ভাই বোরহান দেওয়ান ষড়যন্ত্র করে সম্পত্তি জবর দখলের উদ্দেশ্যে তাদের ছোটবোন মাজেদাকে এনে তার জমিতে ঘর তুলে দেয়। এ ঘটনা নিয়ে কথা কাটাকাটির জেরে গত মঙ্গলবার তার ভাই বোরহান দেওয়ান, তার স্ত্রী আছমা, বোন মাজেদা, ভগ্নিপতি আবুল হোসেন, ভাগিনা হিমেল, আলীনুর ও হাবিবুর দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত তাদের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় তাকেসহ তার মেয়ে আমেনা ও একমাত্র ছেলে স্থানীয় সলিমউদ্দিন চৌধুরী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অনার্স ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী মামুন দেওয়ান নাছিরকে (১৯) পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। সে সময় স্বামী ও ছেলেমেয়েদের রক্তাক্ত দেহ দেখে স্ট্রোক করেন তার স্ত্রী হাকিমা বেগম। দুদিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর বাড্ডা জেনারেল হাসপাতালে মারা যায় মামুন দেওয়ান নাছির (১৯)।

নাছিমের মৃত্যুর খবরে এলাকা থেকে সটকে পরে ঘাতকেরা। এদিকে প্রিয় সহপাঠীর মৃত্যুর খবরে বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে তার সহপাঠীরা। বিকেলে সহপাঠীসহ এলাকাবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে ঘাতকদের বসতবাড়ি ভাঙচুরসহ একটি ঘরে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) শফিউল আজম বলেন, শিক্ষার্থীর মৃত্যু ও সহপাঠীদের বিক্ষোভের সংবাদের সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে সকলকে বুঝিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশ এলাকাবাসীর সহায়তায় আগুন নেভায়। এখনো লাশ এসে পৌঁছেনি। লাশ দাফনের পর নিহতের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন :

আপনার মন্তব্য লিখুন............