শ্রেণিকক্ষে ছাত্রের চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা

0
33

অনলাইন ডেস্কঃ ঢাকার ধামরাইয়ে এক শিক্ষক শ্রেণিকক্ষে এক ছাত্রের  চুল কেটে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ছাত্রের মামা বাদি হয়ে শিক্ষকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দিয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

জানা গেছে, উপজেলার নান্নার ইউনিয়নের জলসীন এলোকেশী উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র সাজ্জাদ হোসেনের মাথার চুল লম্বা ও কুরুচিপূর্ণ করে রাখায় শনিবার শ্রেণিকক্ষে সকল শিক্ষার্থীর সম্মুখে কাচি দিয়ে তার চুল কেটে দেয় ওই বিদ্যালয়ের খন্ডকালীন শিক্ষক মতিউর রহমান সাদ্দাম। এ ঘটনায় সাজ্জাদের মামা আবেদ আলী বাদি হয়ে গতকাল রবিবার থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়।

এদিকে গতকাল সকালে সাজ্জাদের অভিভাবকরা লাঠিসোটা ও দলবল নিয়ে বিদ্যালয়ের ভেতরে ঢোকে অভিযুক্ত শিক্ষককে খুঁজতে থাকে। এ সময় শিক্ষক দৌড়ে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় বিদ্যালয়ের অধিকাংশ শিক্ষক নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলে জানান এ প্রতিবেদককে। এতে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। শিক্ষক মতিউর রহমানের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ছাত্রের চুলকাটার অভিযোগটি মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও নান্নার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন বলেন, বিষয়টি মিমাংসার জন্য আমি প্রধান শিক্ষককে বলে দিয়েছি। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল হান্নান বলেন, চুল কেটে দেওয়ার বিষয়টি ন্যায়সঙ্গত নয়। তবু বিষয়টি মিমাংসার জন্য চেষ্টা চলছে।

ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি।

শব্দপাতা ডট কম/তুষার অপু

 

আপনার মন্তব্য লিখুন............

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here